সংবাদ শিরোনাম
লোডিং...
আমাদের উদ্দেশ্য মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে আলোচনা করা। এখানে মানুষ স্বাস্থ্য সম্পর্কে ধারণা পাবে।
Menu

সোমবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১

পা ফাটার সমস্যা দূর করুণ

পা ফাটার সমস্যা দূর করুণ


শীতের আগমন মানে ত্বকের জন্য দুঃসংবাদ। কারণ এসময় আবহাওয়ার প্রভাবে আমাদের ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হতে শুরু করে। মুখের যত্নে র প্রতি আমরা সবাই কম-বেশি মনোযোগী হলেও খেয়াল থাকে না পায়ের বেলায়। আপনাকে সারাদিন বহন করে নিয়ে চলে যে পা জোড়া, তার প্রতি যতœশীল তো হতেই হবে। 

শীত এলে পা ফাটার সমস্যা প্রায় সবারই হয়ে ‍থাকে। কোমল পা-ও হয়ে পড়ে খসখসে। পা ফাটার কারণে দেখতে তো অসুন্দর লাগেই, এটি অস্বস্তি ও কখনো কখনো যন্ত্রণারও কারণ হতে পারে। পা যেহেতু ধুলোবালির কাছাকাছি বেশি থাকে তাই পা পরিষ্কার রাখাও বেশি জরুরি। আর নয়তো পা ফাটার সমস্যা দেখা দিতে সময় নেবে না। 

শীতের সময়ে পা ফাটার সমস্যায় যদি আপনিও ভুগে থাকে তবে আজই সেদিকে নজর দিন। প্রতিদিনের ছোট ছোট কিছু কাজই আপনাকে এই সমস্যা থেকে মুক্ত রাখবে। নিয়ম মেনে যতœ নিতে পারলেই এই শীতেও আপনার পা থাকবে পরিচ্ছন্ন ও কোমল। সেজন্য খুব বেশি সময়ও লাগবে না। মিনিট দুয়েকের কিছু কাজই যথেষ্ট। 



চলুন জেনে নেওয়া যাক-

কোমল হবে পা

প্রতি সন্ধ্যায় বাড়িতে ফেরার পর একটি কাজ করতে হবে। বিশ্রাম নেওয়ার সময় হালকা গরম পানিতে শ্যাম্পু গুলিয়ে পা দু’খানা ভিজিয়ে রাখতে হবে মিনিট বিশেক। এই সময়ে আপনাকে আলাদা কোনো যতœ করতে হবে না। হয়তো টিভি দেখছেন বা গল্পের বই পড়ছেন, একটি বোলে শ্যাম্পু মেশানো পানি নিয়ে তাতে পা ভিজিয়ে রাখলেই হবে। এতে আলাদা করে সময় নষ্ট হবে না। এরপর পা তুলে ঝামাপাথর দিয়ে রুক্ষ অংশ ঘষে পরিষ্কার করে নিন। এরপর ধুয়ে ক্রিম মেখে মোজা পরে নিন। ঘুমের আগে পায়ে ময়েশ্চারাইজার মাখতে ভুলবেন না।


মৃত কোষ পরিষ্কার

পায়ের মৃত কোষ প্রতিদিন পরিষ্কার না করলে সমস্যা। কারণ এগুলো জমতে থাকলে একটা সময় শক্ত খোলসের মতো হয়ে যাবে। তখন তা বিদায় করা মুুশকিল হয়ে যাবে। সেজন্য ব্যবহার করতে পারেন স্ক্রাব। চালের গুঁড়া, মধু, লেবুর রস, দুধের সর দিয়ে ঘরোয়া স্ক্রাব তৈরি করে সেটি পায়ে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এরপর শুকিয়ে গেলে ঘষে ঘষে তুলে নিন। এরপর ধুয়ে ক্রিম লাগিয়ে নিন।


অ্যালোভেরা জেল ও অলিভ অয়েল ব্যবহার

প্রতিবার পা ধোওয়ার পর অ্যালোভেরা জেল ও অলিভ অয়েলের একটি মিশ্রণ তৈরি করে পুরো পায়ে ভালো করে লাগিয়ে নিতে হবে। এতে পা ফাটার ভয় কমবে। সেইসঙ্গে পা হবে কোমল।


ভিটামিন ই ক্যাপসুল ব্যবহার

পা ভালো রাখতে সাহায্যকারী আরেকটি উপাদান হলো ভিটামিন ই ক্যাপসুল। সেজন্য কয়েকটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল ফুটো করে তেলটুকু ফুটো করে নিন। এরপর সেই তেল পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার মিশ্রণটি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পায়ে মেখে মোজা পরে নিন। এতে পা তো ফাটবেই না, সেইসঙ্গে থাকবে নরমও।


বাইরে বের হওয়ার আগে

পা ফাটার সমস্যা খুব বেশি হলে বাইরে বের হওয়ার আগে কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। যেমন প্রতিবার বাইরে যাওয়ার সময় অবশ্যই মোজা ও পা ঢাকা জুতা পরে বের হতে হবে। এতে পা ফাটার ভয় অনেকটা কমবে। 


গোসলের পর পায়ের যত্ন

গোসলের পর পায়ের যতেœর দিকেও মন দিতে হবে। প্রতিদিন গোসলের পর পায়ে অবশ্যই ময়েশ্চরাইজার লাগিয়ে নেবেন। আবার বাইরে বের হওয়ার সময় পা ঢাকা জুতা পরার আগে ভালোভাবে ক্রিম মেখে মোজা পরে নিতে হবে। এতে ভালো থাকবে পা।

যোগাযোগ -

আরোগ্য হোমিও হল

প্রতিষ্ঠাতা : মৃত : ডা: আজিজুর রহমান 

ডা: মো: হাফিজুর রহমান (পান্না)

বিএসএস, ডিএইচ এমএস (ঢাকা)

ডা: মোসা: অজিফা রহমান (ঝর্না)

 ডিএইচ এমএস (ঢাকা)

রেজি নং- ১৬৯৪২

মথুর ডাঙ্গা, সপুরা, বোয়ালিয়া, রাজশাহী।

মোবাইল - ০১৭১৮১৬৮৯৫৪

arh091083@gmail.com 

hafizurrahman2061980@gmail.com


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: